Now Reading
কিছু খাবার কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কল থেকে মুক্তি দেবে

কিছু খাবার কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কল থেকে মুক্তি দেবে

অসময় ঘুমের অভ্যাস, অপর্যাপ্ত ঘুম, অতিরিক্ত জাঙ্ক ফুড খাওয়া, অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপনের কারণে আপনি শুধু অসুস্থই হয়ে পড়বে না, আপনার অনিয়মের ছাপ পড়বে আপনার চোখে-মুখে, চেহারাতেও। চোখের নীচে কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কল এর মধ্যে অন্যতম। এই ছাপের ফলে চেহারা রুগ্‌ণ দেখায়। চিকিত্সকদের মতে, চোখের তলার কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কল নানা কারণে পড়ে। তবে প্রাথমিক ভাবে এই দাগ এলে তা ঘরোয়া কিছু সব্জি, নিয়মিত জলপান, ঘুম— এ সব দিয়েই দূর করা যায়। সহজলভ্য বেশ কিছু খাবার-দাবার চোখের তলার কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কল দূর করতে সহায়ক হতে পারে।

পানি: কথায় বলে, ‘পানির অপর নাম জীবন’। আমাদের বেঁচে থাকার ক্ষেত্রে একটি অপরিহার্য উপাদান হল পানি। নিয়ম মেনে পানি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। চোখের তলার কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কল কমাতে পানির চেয়ে কার্যকর উপাদান আর কিছু হতে পারে না। জাঙ্ক ফুড, প্রচুর চা-কফি, ঠান্ডা পানীয়— এ গুলি শরীরের পানি শোষণ করে। তাই এ সব যতটা সম্ভব কমিয়ে পর্যাপ্ত পানি খান।

শশা: শশা শরীরে জলের চাহিদা মেটায়। এ ছাড়াও শশায় রয়েছে ভিটামিন এ, সি, কে-র মতো প্রয়োজনীয় উপাদান। শশায় থাকা সালফার ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে সাহায্য করে। চোখের তলার কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কলে শশার রস নিয়মিত ব্যবহারে এই সমস্যা অনেকটাই কমে যায়।

তরমুজ: তরমুজে জল রয়েছে প্রায় ৯২ শতাংশ। এতে বিটা ক্যারোটিন, ফাইবার, লাইকোপিন, ভিটামিন বি-১, বি-২, ভিটামিন সি, পটাসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে। এই উপাদানগুলি চোখের তলার কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কল দূর করতে বিশেষ সাহায্য করে।

টমেটো: সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব ঠেকানোর ক্ষমতা রয়েছে টমেটো রসে। তাই টমেটোকে প্রাকৃতিক টোনার হিসেবেও ব্যবহার করা যেতে পারে। চোখের তলার কালচে ছাপ বা ডার্ক সার্কল দূর করতে টমেটো বিশেষ ভাবে সাহায্য করে।

See Also
খরচ কমান, টাকা বরাদ্দ করুন স্বাস্থ্যবিমা খাতে

তিল: তিলে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন ই, যা আমাদের দৃষ্টিশক্তির জন্য অত্যন্ত উপকারী। চোখের তলার ডার্ক সার্কল দাগ দূর করতে তিলের উপর ভরসা করেন অনেক বিউটিশিয়ানরাও।

এই সব খাবার নিয়মিত খাদ্যতালিকায় রাখলে ডার্ক সার্কলের সমস্যা দ্রুত দূর হবে। তবে হ্যাঁ, একই সঙ্গে অসময় ঘুমের অভ্যাস, অপর্যাপ্ত ঘুম, অতিরিক্ত জাঙ্ক ফুড খাওয়া, অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপনের থেকেও নিজেকে দূরে রাখতে হবে।

What's Your Reaction?
Excited
0
Happy
0
In Love
0
Not Sure
0
Silly
0
View Comments (0)

Leave a Reply

Scroll To Top