Now Reading
প্রতি ২৮ জনে একজন মহিলা ভুগছেন স্তন ক্যানসারে

প্রতি ২৮ জনে একজন মহিলা ভুগছেন স্তন ক্যানসারে

breast cancer

স্তন ক্যান্সারে প্রাথমিকভাবে স্তনের ভিতর দুই সেন্টিমিটার পর্যন্ত টিউমার তৈরি হতে থাকে এবং এর ফলে চিনচিনে ব্যথা, জ্বালা শুরু হতে পারে। প্রতি ২৮ জনে একজন মহিলা ভুগছেন স্তন ক্যানসারে, আপনি নিজেকে পরীক্ষা করছেন তো?

সময় থাকতে থাকতেই স্তনের ক্যানসার নিয়ে সচেতন না হলে মহিলাদের ক্ষেত্রে ভয়াবহ আকার নিতে পারে এই রোগ। প্রতি ২৮ জন মহিলার মধ্যে একজন ভারতে স্তন ক্যানসারে আক্রান্ত হন। এর অন্যতম কারণ হল সচেতনতার অভাব। পাটনার সভেরা ক্যান্সার ও মাল্টিস্পেশ্যালিটি হাসপাতালের বিখ্যাত ক্যান্সার রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ বি পি সিং বলেন, “আমাদের দেশে আজও মহিলারা নিজের শরীর নিয়ে সচেতন নন। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, শহরাঞ্চলে প্রতি ২২ জন মহিলার মধ্যে একজন এই রোগে আক্রান্ত হন, অন্যদিকে গ্রামের মধ্যে ৬০ জন মহিলার মধ্যে একজন স্তন ক্যান্সারের সাথে যুঝতে থাকেন।

তিনি আরও বলেন যে, ভারতের ক্যান্সারের বিষয়টি পশ্চিমী দেশগুলির থেকে ভিন্ন। ভারতে স্তন ক্যান্সারের সমস্যা ৩০ থেকে ৪০ বছর বয়সে বেশি দেখা যায়, অথচ পশ্চিমের দেশে এটি ৫০ বছরের বেশি বয়সী মহিলাদের হয়। ভারতে স্তন ক্যানসারের প্রতি সচেতনতা এবং সঠিক সময়ে চিকিৎসার যথেষ্ট অভাব দেখা যায়। শেষ সময়ে ধরা পড়ায় তা রোগী এবং তাদের পরিবারকে মানসিকরূপে ভেঙে দেয়। বি পি সিং বলেন, “গত কয়েক বছর ধরে দেখা যাচ্ছে ভারতে স্তন ক্যান্সারে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন ৫০ বছরের কম বয়সী মহিলারাই। সচেতনতার অভাবে এমন সময়ে তা ধরা পড়ছে যখন ক্যানসার তৃতীয় বা চতুর্থ পর্যায়ে চলে যাচ্ছে, রোগীর জন্য তা বিপজ্জনক হয়ে পড়ছে।”

তাঁর দাবি যদি প্রাথমিক পর্যায়েই এই রোগ ধরা পড়ে তাহলে চিকিৎসা করাও সহজ হয়ে যায় এবং প্রায় ৮০ শতাংশ রোগী ঠিক হয়ে যান। গ্রামাঞ্চলে আজও এসব রোগের ক্ষেত্রেও মানুষ ওঝা গুণিনের উপরেই আস্থা রাখেন। অবিলম্বে বিশেষজ্ঞের সাথে যোগাযোগ করা উচিৎ এই বিষয়ে। স্তন ক্যান্সারে প্রাথমিকভাবে স্তনের ভিতর দুই সেন্টিমিটার পর্যন্ত টিউমার তৈরি হতে থাকে এবং এর ফলে চিনচিনে ব্যথা, জ্বালা শুরু হতে পারে।

See Also
আচমকা বৃষ্টি আর তাপমাত্রার পরিবর্তন থেকে সাবধানতা অবলম্বন করছেন তো?

তিনি বলেন, “যদি প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়ার পর এই রোগীর চিকিত্সা চলতে থাকে, তাহলে স্রেফ অপারেশনেই প্রতিকার সম্ভব। এছাড়াও কেমোথেরাপি এবং রেডিওথেরাপির মাধ্যমে চিকিৎসা রয়েছে। কেবলমাত্র সচেতন হওয়ার প্রয়োজন। নিজের শরীর নিজের কাছে মূল্যবান হোক।”

What's Your Reaction?
Excited
0
Happy
0
In Love
0
Not Sure
0
Silly
0
View Comments (0)

Leave a Reply

Scroll To Top